দাগনভূঁঞায় কলেজ সরকারীকরণে প্রধান মন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি ১৭ বছরেও বাস্তবায়ন হয়নি
11
ইমাম হাছান কচি
দাগনভূঁঞার ঐতিহ্যবাহী ইকবাল মেমোরিয়াল ডিগ্রি কলেজ সরকারীকরণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি দীর্ঘ ১৭ বছরেও বাস্তবায়ন হয়নি। ফলে কলেজটির উন্নয়নে সরকারি বরাদ্দ যেমন নেই তেমনি প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা বাস্তবায়ন নিয়েও আক্ষেপের কমতি নেই।
জানা যায়, ১৯৮৫ সালের ১ জানুয়ারী বিশিষ্ট শিল্পপতি ও দানবীর আবদুল আউয়াল মিন্টু দাগনভূঁঞার প্রানকেন্দ্রে ফেনী মাইজদী সড়কের মনোরম পরিবেশে ইকবাল মেমোরিয়াল ডিগ্রি কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। ৮১ শতক সম্পত্তির ওপর কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হলেও অবকাঠামোগত উন্নয়নে সরকারী কোন বরাদ্দ পাওয়া যায়নি।
বর্তমানে শিক্ষক-কর্মচারী রয়েছে ৫২জন। মোট শিক্ষার্থী রয়েছে ২ হাজার ৫২৫জন। শ্রেনী কক্ষ রয়েছে ২৪টি। খেলাধুলার মাঠ নেই। বিজ্ঞান ভবন থাকলেও সরঞ্জামাদি প্রয়োজনের তুলনায় কম। প্রতি বছর শতভাগ ফলাফল অর্জন করার পরেও সু-দৃষ্টি মেলেনী সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের। ১৯৯৭ সালের ১৫ নভেম্বর তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ও আজকের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফেনী সফরকালে স্থানীয় জনগণের দাবীর প্রেক্ষিতে দাগনভূঁঞা উপজেলা সদরে ১টি কলেজ ও ১টি স্কুল সরকারী করনের অগ্রাধীকার ভিত্তিতে বাস্তবায়নের ঘোষনা দেন। অথচ ঘোষনার ১৭ বছরের পরেও প্রধানমন্ত্রীর প্রদত্ত সে প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন হয়নি।
যারপ্রেক্ষিতে গত ৭ আগষ্ট দাগনভূঁঞা বাজারের জিরো পয়েন্টে মানব বন্ধন করেছে স্থানীয় জনগন, ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদ, সুশীল সমাজ ও কলেজের অধ্যায়নরত শিক্ষার্থী ও সাবেক শিক্ষার্থীরা। তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব জাকিয়া আক্তার চৌধুরী ৯৭ সালের ২১ ডিসেম্বর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহনের জন্য শিক্ষা সচিবকে অনুরোধ করা করলেও কোন কাজে আসেনি সেই নির্দেশনা। অথচ প্রতি উপজেলায় ১টি কলেজ ও ১টি হাইস্কুল সরকারী থাকলেও এখানে নেই।
কলেজ শিক্ষক পরিষদের সাধারন সম্পাদক ও ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক মহি উদ্দিন বাবুল জানান, কলেজ প্রতিষ্ঠাতা আবদুল আউয়াল মিন্টু কলেজটি সরকারী করনে অনাপত্তি পত্র দিয়েছেন। আশাকরি এ কলেজকে সরকারী করনে সকল ব্যবস্থা গ্রহন করবে শিক্ষামন্ত্রনালয়সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ।
কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি ও আজিজিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি নুরুল হুদা হুদন জানান, এ কলেজ সরকারী হলে কম বেতনে লেখাপড়ার সুযোগ পাবে শিক্ষার্থীরা এবং মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতিরও বাস্তবায়িত হবে।
কলেজের (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যক্ষ আবুল কালাম জানান, কলেজ সরকারী করনে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিও বাস্তবায়ন হয়নি। অপরদিকে সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার লিখিতভাবে জানিয়েও কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা খানম জানান, বিষয়টি তিনি প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয় কে অবহিত করবেন।
ফেনীর সংবাদ