রায়পুরে যৌতুক না পেয়ে গৃহবধূকে নির্যাতন
লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার যৌতুকের টাকা না পেয়ে গৃহবধু নুরনেছা মুন্নীকে মারধর করে নির্যাতন করেছে স্বামী আবদুল কাদের। স্থানীয়রা গৃহবধু নুরনেছা মুন্নীকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করান। বুধবার সকালে উপজেলার বাবুরহাট এলাকায় তার স্বামীর বাড়িতে ঘটেছে। আহত গৃহবধু নুরনেছা মুন্নী রায়পুর উপজেলার রাখালিয়া গ্রামের নুর নবীর মেয়ে। তিনি দুই সন্তানের জননী।
গৃহবধুর স্বজনরা জানান, গত ৫ বছর রায়পুর উপজেলার রাখালিয়া গ্রামের নুর নবীর মেয়ে নুরনেছা মুন্নীর সাথে বিয়ে হয় একই উপজেলার বাবু বাজার এলাকার আবদুল কাদেরের সাথে। বিয়ের পর শ্বশুরু বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে বিদেশে যায় আবদুল কাদের। সম্প্রতি বিদেশ থেকে সে দেশে আসেন। পরে তিনি স্ত্রী নুরনেছা মুন্নীর পরিবারের কাছে যৌতুক দাবী করে। এতে যৌতুকের টাকা দিতে পারবেনা বলে অপারগতা প্রকাশ করায় স্বামীর সাথে কথাকাটি হয় মুন্নীর। এক পর্যায়ে মঙ্গলবার মুন্নীকে স্বামী ও শ্বশুরের পরিবারের লোকজন দফায় দফায় মারধর করে। এতে মুন্নী গুরুতর আহত হয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরবর্তীতে আশপাশের লোকজন মুন্নীকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনার পর থেকে তার স্বামী আবদুল কাদের পালিয়ে যায়।
রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবদুল্লাহ আল মামুন জানায়, এ ঘটনায় থানায় কোন অভিযোগ দেওয়া হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।