চাটখিলে ১০ মামলার আসামীকে পিটিয়ে হত্যা
নিজস্ব প্রতিনিধি-
নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায় ইয়াছিন (৩০) নামে এক যুবককে প্রতিপক্ষ পিটিয়ে হত্যা করেছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার সাহাপুর গ্রামে একটি বিদ্যালয়ের মাঠে সে পিটুনির শিকার হয়। খবর পেয়ে পুলিশ রাতে তার মরদেহ উদ্ধার করে প্রথমে থানায় নিয়ে যায়। পরে বুধবার নিহতের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
পুলিশ জানায়, ইয়াছিন সাহাপুর ইউনিয়নের সাহাপুর গ্রামের আমজী বাড়ির মৃত গোলাম মোস্তফার ছেলে। তার বিরুদ্ধে চাটখিল থানা, লক্ষ্মীপুরের সদর ও রামগঞ্জ থানায় ডাকাতি, হত্যা, অস্ত্র ও মাদকসহ অন্তত ১০টি মামলা রয়েছে। দীর্ঘদিন পর্যন্ত ইয়াছিন নানা অপকর্মের সঙ্গে লিপ্ত। ফলে তার প্রতি ক্ষিপ্ত ছিল এলাকার সাধারণ মানুষ। একই সঙ্গে তাকে ঢিঙিয়ে অপর একটি পক্ষও এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করার চেষ্টা করছিল।
সূত্র জানায়, মঙ্গলবার রাতে সাহাপুর বাজারে ইয়াসিনকে ঘুরতে দেখে তার প্রতিপক্ষের কিছু সদস্য ইয়াছিনকে ধরে বাজারের পাশে সাহাপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নিয়ে যায়। সেখানে তাদের সঙ্গে জড়িত হয় স্থানীয় কিছুলোকজন। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষ ও স্থানীয়রা ইয়াছিনকে গণপিটুনি দিলে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। খবর পেয়ে পুলিশ রাতে ইয়াসিনের মরদেহ উদ্ধার করে চাটখিল থানায় নিয়ে আসে।
জানতে চাইলে চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহিরুল আনোয়ার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ইয়াছিন থানার চিহ্নিত ও তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ১০-১২টি মামলা রয়েছে। কারা হত্যা করেছে এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, এর সঙ্গে তার প্রতিপক্ষ ও স্থানীয় ক্ষুব্দ লোকজন জড়িত রয়েছে।
তিনি জানান, ইয়াছিনের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তার পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।