হাতিয়ায় ব্যবসায়ী নেতাকে কুপিয়ে ১০ লাখ টাকা লুটের অভিযোগ
নিজস্ব প্রতিনিধি
নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার চরচেঙ্গা বাজার বাজার বণিক কল্যাণ সমিতির কোষাধ্যক্ষ মো. রফিকুল ইসলামকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে নগদ টাকা ও মূল্যবান মালামালসহ ১০ লাখ টাকা লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার রাত ৮টার দিকে বাজারে তাঁর নিজস্ব অফিসে ঢুকে অফিস ভিতর থেকে বন্ধ করে সন্ত্রাসীরা তাঁকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম।
আহত মো. রফিকুল ইসলাম সোনাদিয়া ইউনিয়নের চরচেঙ্গা গ্রামের মমতাজুল করিমের ছেলে। তিনি ওই বাজারের বিভিন্ন কোম্পানীর ডিস্টিবিউটর ব্যবসা করছেন এবং পপুলার ইন্সুরেন্স কোম্পানী লি. এর আঞ্চলিক কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত।
স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, রাত ৮টার দিকে হঠাৎ একদল অস্ত্রধারী রফিকুল ইসলামের ডিস্টিবিউটর ও বীমা অফিসে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেয়। এ সময় রফিকুল কিছু বুঝে উঠতে না উঠতে কয়েকজন সন্ত্রাসী তাকে বেদম পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত করে। এর মধ্যে কয়েকজন স্টিলিরে আলমিরাতে থাকা বিমা ও ব্যবসায়ের নগদ টাকা ও কিছু মূল্যবান মালাসহ প্রায় ১০ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এসময় অস্ত্রধারীরা অফিস কক্ষের সমস্ত কাগজপত্র ও বিভিন্ন জিনিসপত্র তছনছ করে ফেলে। পরে স্থানীয় লোকজন তার চিৎকার শুনে আসতে থাকলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এক পর্যায়ে লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় রফিকুল ইসলামকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় এক পল্লী চিকিৎসকের কাছে নেয়। পরে হাতিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করান।
হাতিয়া স্বাস্থ কমপ্লেক্সের উপ-সহকারি কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার (সেকমো) মানছুরুল হক বলেন, রফিকুলকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। গতকাল রোববার সকালে পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
আহতের ভাই সাংবাদিক শাহেদ শফিক বলেন, সন্ত্রাসীরা তার ভাইকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করেছে। এখনও তিনি কথা বলতে পারছে না। তাই উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এক প্রশ্নে তিনি বলেন, এটা দুর্ধর্ষ ডাকাতি। ডাকাতদল তাকে রক্তাক্ত করে ১০ লাখ টাকার মতো লুটে নিয়েছে। এ বিষয়ে মৌখিকভাবে হাতিয়ায় থানায় জানানো হলে রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান শিকদার লেন, সম্প্রতি জায়গা-জমি বিক্রিকে কেন্দ্র করেও স্থানীয় এক পক্ষের সঙ্গে রফিকুল ইসলামের বিরোধ হয়েছিল। সে ঘটনাকে কেন্দ্র করে এমন হয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আহতের পরিবারকে থানায় লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।