ডিএনসিসির মেয়র পদে আলোচনায় যারা
নিজস্ব প্রতিনিধি
আনিসুল হকের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে কে আসছেন তা নিয়ে এরই মধ্যে শুরু হয়েছে নানা ধরনের আলোচনা।11

মেয়র পদে উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে এরই মধ্যে বেশ কয়েকজনের নামও শোনা যাচ্ছে, যাদের মধ্যে প্রয়াত আনিসুল হকের স্ত্রী রুবানা হক ও একমাত্র ছেলে নাভিদুল হক আছেন। গত নির্বাচনে আনিসুল হকের কাছে হেরে যাওয়া বিএনপি প্রার্থী তাবিথ আউয়ালও আছেন আলোচনায়। এছাড়া অরাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে আসছে এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি এ কে আজাদের নাম। এর বাইরে সাংসদ সাবের হোসেন চৌধুরী এবং নারায়ণগঞ্জের সাবেক এমপি অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী মেয়র প্রার্থী হতে পারেন বলে শোনা যাচ্ছে।

ডিএনসিসির মেয়র পদে গত নির্বাচনে আনিসুল হকের মনোনয়ন ছিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চমক। নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব গ্রহণের অল্প সময়ের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠেন তিনি। পরিচ্ছন্ন নগরী গড়তে তার অনেকগুলো উদ্যোগ বেশ প্রশংসিত হয়। আনিসুল হকের মৃত্যুর পর তার মতো পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তির কাউকেই মেয়র পদে আশা করছে নগরবাসী। আর এখানেই আসছে আনিসুল হকের উত্তরসূরী হিসেবে এ কে আজাদের নাম। প্রয়াত আনিসুল হকের মতোই তার রয়েছে একটি পরিচ্ছন্ন ইমেজ ও উজ্জ্বল ভাবমূর্তি।

এফবিসিসিআই'র সাবেক সভাপতি এ কে আজাদ হা-মীম গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। বাংলাদেশ চেম্বার অব ইন্ডাস্ট্রিজের (বিসিআই) সভাপতির দায়িত্বও পালন করছেন তিনি। এর বাইরে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল টোয়েন্টিফোর ও দৈনিক সমকালের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্বেও আছেন তিনি। সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডেরও তিনি উদ্যোক্তা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফলিত পদার্থ বিজ্ঞানে স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রি অর্জনের পর ব্যবসা শুরু করা এ কে আজাদ দীর্ঘদিন ধরে পাট, বস্ত্র, চা ও তৈরি পোশাক শিল্প ব্যবসায় জড়িত। অক্লান্ত পরিশ্রম ও প্রচেষ্টার মাধ্যমে তিনি এসব খাতের উন্নয়ন এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ জাতীয় অর্থনীতিতে অনন্য আবদান রেখে চলেছেন। শিক্ষানুরাগী এ কে আজাদ ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনেরও সভাপতি।  

তবে ডিএনসিসির সম্ভাব্য মেয়র পদে এ কে আজাদসহ বেশ কয়েকজনের নাম এলেও রাজনৈতিক দলগুলোর পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলা হয়নি। নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরই প্রার্থী চূড়ান্ত হবে বলে দলগুলোর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা জানান, আগামী সংসদ নির্বাচনের আগে ডিনএনসিসির উপনির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে এ নির্বাচনের দিকে চোখ থাকবে সবার। এক্ষেত্রে পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তির যোগ্য প্রার্থী দিয়েই নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে হবে বলে মনে করছেন ক্ষমতাসীন দলটির নেতারা।

এদিকে বিএনপি ডিএনসিসির মেয়র পদে উপনির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে বলে দলটির নীতিনির্ধারকরা নিশ্চিত করেছেন। তবে তাদের সম্ভাব্য প্রার্থী নিয়ে এখনই কোনো কথা বলতে চান না তারা। নির্বাচন কমিশন নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর দলীয় ফোরামে আলোচনা করে প্রার্থী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তারা।

২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিত ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হন আনিসুল হক। ওই দায়িত্ব পালনের মধ্যেই চলতি বছরের জুলাইয়ে যুক্তরাজ্যে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতাল ভর্তি হন তিনি। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর  চিকিৎসকরা জানান, আনিসুল হক মস্তিষ্কের প্রদাহজনিত রোগ সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিসে আক্রান্ত। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৩০ নভেম্বর তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

তার মৃত্যুতে শূন্য হওয়া ডিএনসিসির মেয়র পদে আগামী ফেব্রুয়ারির মধ্যেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে এরই মধ্যে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।